‘ভুলে ভরা’ জিএসটি চালু করার জন্য দেশবাসী জেটলির পদত্যাগ দাবি করতেই পারেন: যশবন্ত সিনহা

By: Web Desk, ABP Ananda | Last Updated: Tuesday, 14 November 2017 10:06 PM
‘ভুলে ভরা’ জিএসটি চালু করার জন্য দেশবাসী জেটলির পদত্যাগ দাবি করতেই পারেন: যশবন্ত সিনহা

আমবাবাদ: জিএসটি নিয়ে ফের অরুণ জেটলিকে নিশানা করলেন প্রবীণ বিজেপি নেতা যশবন্ত সিনহা। তাঁর মতে, ‘ভুলে ভরা’ পণ্য পরিষেবা করের ফলে দেশবাসী যে সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন, তার জন্য তাঁরা কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করতেই পারেন। গুজরাতের রাজ্যসভার সাংসদ হলেন জেটলি। সেই বিষয়টিকেও হাতিয়ার করেন যশবন্ত। তাঁর দাবি, গুজরাতের মানুষের কাছে ‘বোঝা’ হয়ে উঠেছেন তিনি।

সাম্প্রতিককালে, মোদী সরকারের আর্থিক নীতির প্রবল সমালোচক হয়েছেন যশবন্ত। তাঁর অভিযোগ, সবদিক খতিয়ে না দেখেই কেন্দ্র তড়িঘড়ি জিএসটি চালু করেছে। প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর পদে থাকা যশবন্তের মতে, নোট বাতিল ও জিএসটি-র মাধ্যমে দেশ দুটি ধাক্কা খেয়েছে। এদিন গুজরাতে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে যশবন্ত বলেন, আমাদের অর্থমন্ত্রী (জেটলি) গুজরাতের মানুষ নন। তাঁকে এখান থেকে রাজ্যসভায় পাঠানো হয়েছে। তিনি না থাকলে সম্ভবত একজন গুজরাতি সেই জায়গায় যেতে পারতেন।

যশবন্ত দাবি করেন, বর্তমান অর্থমন্ত্রী একটিই তত্ত্বে বিশ্বাস করেন। তা হল, তিনি সব কৃতিত্ব নেবেন, কোনও দায় নেবেন না। প্রবীণ নেতার মতে, যদি কার্যকর করার আগে জিএসটি-তে মনোনিবেশ করা হতো, তাহলে এত ভুলভ্রান্তি এড়ানো সম্ভব হতো। একটা ভুলে ভরা কর-ব্যবস্থা দেশের ওপর চাপিয়ে দেওয়ার কৃতিত্ব তিনি নিতে পারেন না। এর জন্য দেশবাসী তাঁর পদত্যাগ দাবি করতেই পারেন। ওর পদ খোয়া উচিত।

কয়েকদিন আগে, যশবন্তকে কটাক্ষ করে জেটলি বলেছিলেন, কেউ কেউ ৮০ বছর বয়সেও চাকরি চাইছে। এপ্রসঙ্গে জবাব দিয়েছেন যশবন্ত। বলেন, আমি তাঁদের থেকে ফিট যাঁরা বসে বসে ভাষণ পড়ে। প্রসঙ্গত, প্রকাশ্যে না বললেও, যশবন্ত যে জেটলির বসে বাজেট পেশ করাকেই ইঙ্গিত করেছেন, তা স্পষ্ট। প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর নেতৃত্বাধীন প্রথম এনডিএ সরকারের আমলে থাকা অর্থমন্ত্রী যশবন্ত জানান, তিনি জিএসটির স্বপক্ষেই ছিলেন। যে কারণে তিনি এর সমর্থন করেছিলেন। কিন্তু, যেভাবে একে কার্যকর করা হয়েছে, তাতে মানুষের সমস্যা বৃদ্ধি পেয়েছে।

First Published: Tuesday, 14 November 2017 10:06 PM

Related Stories

কেরলে শিশুদের টিকাকরণের সময় আক্রান্ত জুনিয়র নার্স
কেরলে শিশুদের টিকাকরণের সময় আক্রান্ত জুনিয়র নার্স

তিরুঅনন্তপুরম: কেরলের মলপ্পরুম জেলার একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিশুদের

কেন্দ্রে কংগ্রেস ক্ষমতায় এলে পৃথক মত্‍স্যমন্ত্রক, গুজরাতে ভোটের প্রচারে প্রতিশ্রুতি রাহুলের
কেন্দ্রে কংগ্রেস ক্ষমতায় এলে পৃথক মত্‍স্যমন্ত্রক, গুজরাতে ভোটের...

পোরবন্দর: গুজরাতে ভোটের প্রচারে এসে মত্‍স্যজীবীদের প্রতি বার্তা কংগ্রেস

হার্দিক পটেলকে ওয়াই ক্যাটাগরি নিরাপত্তা দেবে কেন্দ্র
হার্দিক পটেলকে ওয়াই ক্যাটাগরি নিরাপত্তা দেবে কেন্দ্র

নয়াদিল্লি: পাতিদার আনামত আন্দোলন সমিতির নেতা হার্দিক পটেলকে ওয়াই

উত্তরপ্রদেশ: মুসলিম ছাত্রীকে হেডস্কার্ফ পরতে মানা করল মিশনারি স্কুল
উত্তরপ্রদেশ: মুসলিম ছাত্রীকে হেডস্কার্ফ পরতে মানা করল মিশনারি...

বরাবাঁকি (উত্তরপ্রদেশ): হয় হেডস্কার্ফ খুলে ফেলো, না হলে কোনও ইসলামি স্কুলে

অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে অন্য কাঠামো নয়, রামমন্দিরই হবে, জানালেন ভাগবত
অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে অন্য কাঠামো নয়, রামমন্দিরই হবে, জানালেন...

বহু বছরের প্রয়াস, আত্মত্যাগের ফলে রামমন্দির নির্মাণ এখন সম্ভব বলে মনে

টাকা তুলতে যাচ্ছেন? এটিএম থেকে পেতে পারেন ইনফ্লুয়েঞ্জা, শ্বাসজনিত রোগও, দাবি গবেষণায়
টাকা তুলতে যাচ্ছেন? এটিএম থেকে পেতে পারেন ইনফ্লুয়েঞ্জা, শ্বাসজনিত...

নয়াদিল্লি: দোরগোড়ায় শীত। তার সঙ্গেই দরজায় কড়া নাড়ছে একাধিক

আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উত্সবে এস দুর্গা দেখানোর নির্দেশে স্থগিতাদেশের আর্জি নাকচ কেরল হাইকোর্টের
আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উত্সবে এস দুর্গা দেখানোর নির্দেশে...

কেন্দ্রের পিটিশনে বলা হয়, জুরিরা বাছাই করলেও কেন্দ্রীয় ফিল্ম সেন্সর

গুজরাতে ভোটের পরই ১৫ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত সংসদের শীতকালীন অধিবেশন
গুজরাতে ভোটের পরই ১৫ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত সংসদের...

নয়াদিল্লি: অবশেষে সংসদের শীতকালীন অধিবেশন ডাকার কথা জানাল কেন্দ্র। 

আরও বিপাকে ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়, আজ ইডি অর্থপাচার কাণ্ডে জেরা করবে তাঁকে
আরও বিপাকে ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়, আজ ইডি অর্থপাচার কাণ্ডে জেরা...

মুম্বই: আজ বাইকুল্লা জেলে শিনা বোরা হত্যা মামলার মুখ্য অভিযুক্ত ইন্দ্রাণী

পদ্মাবতী-প্রতিবাদ আরও ঘোরালো, মৃতদেহ ঝুলিয়ে দেওয়া হল জয়পুরের নাহারগড় দুর্গে
পদ্মাবতী-প্রতিবাদ আরও ঘোরালো, মৃতদেহ ঝুলিয়ে দেওয়া হল জয়পুরের...

জয়পুর: এবার হিংস্র চেহারা নিল পদ্মাবতীর বিরোধী আন্দোলন। জয়পুরের নাহারগড়