‘র’ এজেন্ট বলে মৌলবীদের আটক করেছিল পাক প্রশাসন! দাবি

By: Web Desk, ABP Ananda | Last Updated: Monday, 20 March 2017 7:51 PM
‘র’ এজেন্ট বলে মৌলবীদের আটক করেছিল পাক প্রশাসন! দাবি

নয়াদিল্লি: পাকিস্তান সফরে গিয়ে ২ ভারতীয় মৌলবীর ‘সাময়িক অন্তর্ধান’ রহস্য আরও ঘনীভূত হল।

পাকিস্তানে কিছুদিন ‘নিখোঁজ’ থাকার পর সোমবারই দেশে ফিরলেন হজরত নিজামুদ্দিন দরগার প্রধান মৌলবী এবং তাঁর ভাইপো। নিরাপদে ফেরার জন্য তাঁরা বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সঙ্গে সাক্ষাত করে ধন্যবাদ জানান।

৮০ বছরের সঈদ আসিফ নিজামি এবং সুফি মৌলবী নাজিম আলি নিজামি এদিন পাক আন্তর্জাতিক এয়ারলাইন্সের বিমানে করে দিল্লি বিমানবন্দরে পৌঁছন। পরে, তাঁরা সুষমা স্বরাজের সঙ্গে কথা বলেন। প্রসঙ্গত, দুজনের ফেরতের বিষয়ে ইসলামাবাদের সঙ্গে কূটনৈতিক স্তরে কথা বলেছিলেন সুষমা।

প্রসঙ্গত, গত ৮ মার্চ দুজনে লাহোর যান। কিন্তু, গত সপ্তাহের মাঝামাঝি সময় থেকে আচমকা ‘নিখোঁজ’ হয়ে যান। জানা যায়, আসিফ তাঁর নবতিপর দিদিকে দেখতে করাচি গিয়েছিলেন। শনিবার, পাকিস্তানের তরফে জানানো হয়, ওই ২ মৌলবীর খোঁজ মিলেছে। তাঁরা করাচিতে রয়েছেন।

দুই মৌলবীর ‘নিখোঁজ’ হওয়ার ঘটনায় নড়েচড়ে বসে কেন্দ্র। পাক প্রধানমন্ত্রীর বিদেশ-বিষয়ক উপদেষ্টা সরতাজ আজিজের সঙ্গে কথা বলেন সুষমা। তাঁদের দ্রুত ফেরানোর কথা বলেন। পাক সংবাদমাধ্যমের দাবি, ওই দুজন অভ্যন্তরীণ সিন্ধু প্রদেশে ছিলেন। সেখানে নেটওয়ার্ক না থাকায় তাঁরা যোগাযোগ করতে পারেননি।

এদিকে, দেশে ফিরে দুই মৌলবী তাঁদের ‘নিখোঁজ’ বিতর্ক নিয়ে মুখ খুলতে না চাইলেও, একজনের আত্মীয় বিস্ফোরক দাবি করেন। আসিফ নিজামির ছেলে সাজিদের দাবি, করাচির এক দৈনিকে খবরে প্রকাশিত হয় যে দুজন ভারতীয় গুপ্তচর সংস্থা ‘র’-এর এজেন্ট। তিনি যোগ করেন, এরপরই তাঁদের ‘নিয়ে যাওয়া’ হয়।

অন্যদিকে, অপর মৌলবী নাজিম আলি নিজামিও স্বীকার করে নেন, পাক প্রশাসন তাঁদের আটক করেছিল। পাশাপাশি, পাক সংবাদমাধ্যমের দাবি খারিজ করে তাঁর পাল্টা দাবি, নেটওয়ার্ক না থাকার যে কথা উঠছে, তা মিথ্যে। যদিও, গোটা পর্বে পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই-এর কোনও ভূমিকা ছিল কি না সেই প্রসঙ্গে মুখ খোলেননি তিনি। তাঁর দাবি, তাঁদের ওপর কোনও বলপ্রয়োগ করা হয়নি।

পরে, সুষমা স্বরাজের সঙ্গে সাক্ষাত করে দুজনে কেন্দ্রীয় সরকারকে ধন্যবাদ জানান। বিশেষ করে সুষমা স্বরাজের প্রশংসা করেন দুই মৌলবী। নিজাম বলেন, আমরা কোনওভাবেই অনৈতিক কাজের সঙ্গে যুক্ত নন। আমরা সেখানে ভালবাসা ও শান্তির বার্তা ছড়িয়ে দিতে গিয়েছিলাম। তবে, মনে হয় কারও তা পছন্দ হয়নি। তিনি যোগ করেন, সুযোগ পেলে তিনি ফের পাকিস্তানে যাবেন।

 

First Published: Monday, 20 March 2017 12:18 PM