৩৫এ ধারা বিতর্কে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করলেন মেহবুবা মুফতি, সংবিধান থেকে ওই ধারা সরিয়ে দেওয়ার সময় এসেছে, বলল বিজেপি

By: ABP Ananda, Web desk | Last Updated: Friday, 11 August 2017 3:04 PM
৩৫এ ধারা বিতর্কে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করলেন মেহবুবা মুফতি, সংবিধান থেকে ওই ধারা সরিয়ে দেওয়ার সময় এসেছে, বলল বিজেপি

নয়াদিল্লি: কাশ্মীরের জন্য সংবিধানের বিশেষ অধিকার ৩৫এ ধারা বহাল রাখার দাবিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দেখা করলেন কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি। এর আগে গতকাল তিনি দেখা করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহের সঙ্গে।

৩৫এ ধারা কাশ্মীরের আদত বাসিন্দাদের চিহ্নিত করে তাঁদের বিশেষ কিছু সুযোগ সুবিধে দিয়েছে। ভিন রাজ্যের কেউ ও রাজ্যে জমি কিনে বসবাস করতে পারবেন না। বিবাহ সূত্রে কেউ যদি অন্য রাজ্যের বাসিন্দা হন, তাহলেও তিনি কাশ্মীরে তাঁর প্রাপ্য সম্পত্তির অধিকার থেকে বঞ্চিত হবেন। এই ধারা অবশিষ্ট রাষ্ট্রের সঙ্গে কাশ্মীরের মানসিক বিচ্ছেদ ঘটিয়েছে অভিযোগে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। তাদের দাবি, সংবিধান থেকে ৩৫এ ধারা বিলুপ্ত করতে হবে।

কিন্তু কাশ্মীরের রাজনৈতিক দলগুলি এই আবেদনের তীব্র বিরোধিতা করেছে। এ ব্যাপারে রণকৌশল স্থির করতে বিরোধী দলনেতা ওমর আবদুল্লার সঙ্গে বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি। এ ব্যাপারে কথা বলতেই আজ তিনি দেখা করেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে।

কেন্দ্র অবশ্য এ বিষয়ে শীর্ষ আদালতে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করেনি। ৩৫এ ধারা সংক্রান্ত বিষয়গুলি শুধু আদালতে তুলে ধরেছে তারা, নিজেরা কোনও অবস্থান নেয়নি বা এফিডেভিট দায়ের করেনি।

বিজেপি অবশ্য পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছে, তারা ৩৫এ ধারার বিপক্ষে। তাদের মতে, ৩৭০ ও ৩৫এ ধারা কাশ্মীরের মানুষের মধ্যে বিচ্ছিন্নতাবাদ জন্ম দিয়েছে। এতে স্তব্ধ হয়ে আছে রাজ্যের উন্নয়ন। তাই এখনই এই ধারাকে বিদায় জানানো প্রয়োজন।

 

First Published: Friday, 11 August 2017 3:04 PM