টেস্ট করানোর নামে মেডিক্যাল কলেজ থেকে শিশু 'চুরি', ৯ ঘণ্টা পরে উদ্ধার বাগমারি থেকে, আটক অভিযুক্ত মহিলা

By: Arnab Mukherjee, Ruma Pal & Subhash Baidya, ABP Ananda | Last Updated: Tuesday, 14 March 2017 10:14 PM
টেস্ট করানোর নামে মেডিক্যাল কলেজ থেকে শিশু 'চুরি', ৯ ঘণ্টা পরে উদ্ধার বাগমারি থেকে, আটক অভিযুক্ত মহিলা

কলকাতা: ফের সরকারি হাসপাতাল থেকে শিশু চুরির অভিযোগ! এবার কাঠগড়ায় কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল। ঘটনাকে ঘিরে অগ্নিগর্ভ হাসপাতাল চত্বর। সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়ে সন্দেহজনক মহিলার ছবি! এর প্রায় ৯-ঘণ্টা পর হদিস মেলে সন্দেহভাজনের। উদ্ধার হয় চুরি যাওয়া শিশু। আটক করা হয় অভিযুক্তকে।

ঘটনায় প্রকাশ, ১০ মার্চ পুত্রসন্তানের দন্ম দেন বাগমারীর বাসিন্দা সরস্বতী নস্কর। বুধবার ছেলেকে নিয়ে বাড়ি ফেরার কথা ছিল তাঁর। কিন্তু তার আগেই বিপত্তি। পরিবারের দাবি, মঙ্গলবার, সকাল সাড়ে ১১টা নাগাদ এক মহিলা প্রসূতি বিভাগে ঢোকেন। সরস্বতীকে বলেন, বাচ্চার চেক আপ করাতে হবে, নিয়ে যাব। অভিযোগ, শিশু নিয়ে চলে যায় ওই মহিলা। কাঁদতে কাঁদতে সরস্বতী নস্কর জানান, চেক আপ করবে বলে নিয়ে গেল, আর এল না। সরস্বতীর দাবিকে সমর্থন করেন পাশের বেডের মহিলা। ওই প্রত্যক্ষদর্শীও জানান, মহিলা এসে বলল টেস্ট করাতে হবে। বলে বাচ্চা নিয়ে চলে যায়।

শিশু উধাও হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়তেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে হাসপাতাল। ক্ষোভে ফেটে পড়ে নিখোঁজ শিশুর পরিজনরা। সদ্যোজাত সন্তান উধাওয়ের ঘটনায় উঠে এসেছে আরও বিস্ফোরক তথ্য! সরস্বতীর পরিজনের দাবি, গার্ড সব জানে। ওকে ধরলেই আমরা শিশু ফেরত মিলবে।
প্রশ্ন উঠছে তাহলে কি ওই মহিলার নিয়মিত যাতায়াত ছিল ওয়ার্ডে? তিনি কি হাসপাতালেরই কেউ? নাকি বাইরের? প্রসূতি জানান, তিনি আগেও সন্দেহভাজন মহিলাকে দেখেছেন। বলেন, আগে একবার দেখেছিলাম। ফর্সা, লম্বা।
ঘটনা জানাজানি হতেই নড়চড়ে বসে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সুপার জানান, তিনি স্বাস্থ্য ভবনে বিষয়টি জানিয়েছেন। শিশু উধাওয়ের ঘটনায় বউবাজার থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে পরিবার। তদন্তে নেমে প্রথমে হাসপাতালের সিসিটিভি ফুটেজ পরীক্ষা করে পুলিশ।
পাওয়া যায় সবুজ শাড়ি পরা এক মহিলার ছবি! হাসপাতালের কাছেই রয়েছে সেন্ট্রাল মেট্রো স্টেশন। সেখানকার সিসিটিভি ক্যামেরাতেও ধরা পড়ে সন্দেহভাজন মহিলার ছবি! কোলে বাচ্চা! পরনে সেই সবুজ শাড়ি! হাতে বড় প্লাস্টিক!

etx-medical-college-cctv-st etx-medical-college-cctv-su

পুলিশ সূত্রে দাবি, স্টেশনের ফুটেজ থেকেই জানা গিয়েছে, সেন্ট্রাল থেকে গড়িয়াগামী মেট্রোয় ওঠেন মহিলা। তার খোঁজ পেতে সব মেট্রো স্টেশন ও সংশ্লিষ্ট থানাগুলিতে সতর্কবার্তা পাঠানো হয়েছে। সন্দেহভাজন এই মহিলার খোঁজ দিতে পারলে, ১ লক্ষ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছে কলকাতা পুলিশ।
এদিকে, এক মায়ের কোল খালি হতেই, আতঙ্ক ছড়াল অন্য মায়েদের মধ্যে! সদ্যোজাতকে কোলে নিয়ে ‘পড়ি কি মরি’ করে দৌড়ে হাসপাতাল ছাড়লেন অনেকেই। যার জেরে প্রকট হল সরকারি হাসপাতালের নিরাপত্তাহীনতা!

ঘটনার প্রায়  ৯ ঘণ্টা পরে চুরি যাওয়া শিশু উদ্ধার। সিসিটিভির সূত্র ধরে সন্দেহভাজন গ্রেফতার করা হয়। সেন্ট্রাল থেকে নামে পার্ক স্ট্রিটে। সূত্র ধরেই মিলল শিশু-সহ মহিলার হদিশ। জানা গিয়েছে, যেখানে শিশুর বাড়ি, সেখানেই থাকে মহিলা। বাগমারি থেকেই চুরি যাওয়া শিশু উদ্ধার। বাগমারিতেই সদ্যোজাত শিশুর বাড়ি।

First Published: Tuesday, 14 March 2017 4:45 PM