স্পট ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে শ্রীসন্থের বিরুদ্ধে বিসিসিআইকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করতে বলল কেরল হাইকোর্ট

By: Web Desk, ABP Ananda | Last Updated: Monday, 7 August 2017 6:25 PM
স্পট ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে শ্রীসন্থের বিরুদ্ধে বিসিসিআইকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করতে বলল কেরল হাইকোর্ট

কোচি: ক্রিকেটার এস শ্রীসন্থের বিরুদ্ধে ২০১৩-র স্পট ফিক্সিং কেলেঙ্কারির জেরে ঘোষিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের নির্দেশ দিল কেরল হাইকোর্ট।

ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডকে (বিসিসিআই) ওই পেসারের বিরুদ্ধে যাবতীয় আইনি প্রক্রিয়া বাতিল করতেও নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি এ মুহম্মদ মুস্তাক।

কেরল হাইকোর্ট শ্রীসন্থের ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে বলার পর প্রাক্তন ক্রিকেটার কেরল টিমে ফেরাই তাঁর কাছে অগ্রাধিকার পাবে বলে জানিয়েছেন। শ্রীসন্থের দাবি, তিনি শারীরিকভাবে ফিট, শীঘ্রই মাঠে নামবেন। কোচিতে তিনি বলেন, সুখে-দুঃখে অনেকে আমার পাশে ছিলেন। তাঁদের কাছে সত্যিই আমি কৃতজ্ঞ, তাঁদের হতাশ করব না।

ষষ্ঠ আইপিএলে ম্যাচ গড়াপেটাকাণ্ডে তাঁর বিরুদ্ধে বিসিসিআইয়ের দেওয়া নিষেধাজ্ঞা চ্যালেঞ্জ করেছিলেন শ্রীসন্থ। সে ব্যাপারে ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক বোর্ডের মত জানতে চেয়েছিল আদালত।
স্পট ফিক্সিং মামলায় শ্রীসন্থ, অঙ্কিত চৌহান, অজিত চান্ডিলা সমেত ৩৬ অভিযুক্তের সবাইকেই ২০১৫-র জুলাইয়ে রেহাই দেয় পাতিয়ালা হাউস কোর্ট। কিন্তু তারপরও নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্তে বদলাতে রাজি হয়নি বোর্ড।

আদালত তাঁর নামে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ খারিজ করে দেওয়ার পরও খেলার ওপর সারা জীবনের নিষেধাজ্ঞা চ্যালেঞ্জ করেন ৩৪ বছর বয়সি ক্রিকেটার। হাইকোর্টও নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়ে বলেছে, ওঁকে রেহাই দেওয়া হলেও কী করে ওঁকে নিষিদ্ধ করে বিসিসিআই? এ তো ন্যয় বিচারের পরিপন্থী।

ক্রিকেট বোর্ড বলেছিল, দায়রা আদালত আবেদনকারীকে ফৌজদারি অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দিলেও তাঁকে বিসিসিআই বা তাদের অনুমোদিত, সহযোগী সংস্থাগুলি পরিচালিত ক্রিকেট টুর্নামেন্টে খেলায় নিষিদ্ধ করার যে সিদ্ধান্ত বিসিসিআইয়ের অভ্যন্তরীণ কমিটি নিয়েছে, তার ওপর কোনও প্রভাব পড়ছে না।

বিসিসিআই বলেছে, আবেদনকারী ও অন্য অভিযুক্তদের প্রাসঙ্গিক ফৌজদারি ধারায় শাস্তি পাওয়া উচিত কিনা, আদালতের সামনে সেটাই ছিল মূল প্রশ্ন। অপরদিকে আবেদনকারী ম্যাচ গড়াপেটা, দুর্নীতি, জুয়া, বিসিসিআইয়ের অভ্যন্তরীণ শৃঙ্খলামূলক নিয়ম ভঙ্গ করায় অপরাধী কিনা, বিসিসিআইয়ের কমিটির কাছে বিচার্য ছিল এটাই।

First Published: Monday, 7 August 2017 4:32 PM